বাংলাদেশ, শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১

আগ্রাবাদে মিন্টু হত্যা মামলার প্রধান আসামী রমজান ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রেফতার


প্রকাশের সময় :১৭ নভেম্বর, ২০২০ ৬:২৪ : পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : নগরীর ডবলমুরিং থানাধিন আগ্রাবাদ এলাকায় সন্ত্রাসীদের হাতে যুবলীগ কর্মী মারুফ চৌধুরী মিন্টু
হত্যা মামলার প্রধান অভিযুক্ত মোঃ রমজানকে গ্রেফতার করেছে ডবলমুরিং থানার পুলিশ৷ গতকাল “মিন্টু হত্যাকান্ডের আসামীরা ধরাছোঁয়ার বাইরে” শিরোনামে বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করে সিক্সটিন বাংলা৷

আজ আশুগঞ্জ ফেরিঘাটে অভিযান চালিয়ে রমজানকে গ্রেফতার করা হয়৷ সে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়া চেষ্টা করছিলো বলে ডবলমুরিং থানা সূত্র জানিয়েছে৷ ইতিমধ্যে রমজানকে চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হয়েছে৷ তবে এখনো হত্যাকান্ডের অন্যতম অভিযুক্ত কিশোর গ্যাং লিডার মোস্তাফা কালাম টিপু ধরা পড়েনি৷

এই বিষয়ে মামলা তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শল অর্নব বড়ুয়া সিক্সটিন বাংলাকে বলেন, আমারা উর্ধ্বতন স্যারদের সার্বিক দিকনির্দেশনায় মিন্টু হত্যামামলার আসামীদের গ্রেফতারে শুরু থেকেই তৎপর ছিলাম৷ আমরা জানতে পারি আসামী সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়া চেষ্টা করছে। সেই তথ্য মতে আজ আগুগঞ্জের ফেরিঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে আমরা হত্যা মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই৷ আশাকরছি শীঘ্রই অন্যান্য আসামীদেরক আইনের আওতায় আনতে সক্ষম হবো৷

উল্লেখ্য, গত ১২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার রাত পৌনে দশটার দিকে স্থানীয় কিশোর গ্যাং লিডার মোস্তাফা কামাল টিপুর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদ হোটেলের পাশের সড়কে মিন্টুকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় সন্ত্রাসীদের আঘাতে মিন্টু মাথায় গুরুতর আঘাত পান। সংজ্ঞাহীন আশংকাজনক অবস্থায় নগরীর রয়েল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

মিন্টু নিহতের পর তার বোন রোজি চৌধুরী বাদি হয়ে গ্যাং লিডার মোস্তাফা কামাল টিপু সহ সাতজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরো ১২ জনের নামে ডবলমুরিং থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন৷ মামলায় আসামীরা হলেন, ১/ মোঃ রমজান আলী (২৫) পিতা- মোঃ আক্তার ২/ মোস্তাফা কামাল টিপু (৪০) পিতা সবুর মাস্টার ৩/মোঃ নাহিদ (২৮) ৪/ মোঃ মাহবুব (৩৫) ৫/ফয়সাল খান (২২) ৬/শাহেদ (৩৬) এবং ৭/ মোঃ রাব্বি৷ এছাড়া আরো ১০/১২ জনকে আসামী করা হয়েছে৷

 

ট্যাগ :