বাংলাদেশ, বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

শিরোনাম

রাতে ভোট কেন্দ্রে ওরা কারা ? নগরীর বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষ, বোমাবাজি !


প্রকাশের সময় :২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ৮:০১ : অপরাহ্ণ

আর মাত্র কয়েক ঘন্টা পর শুরু হবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোট গ্রহন। ইতিমধ্যে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার ভোটের ইভিএম সহ আনুসাঙ্গিক সামগ্রী নিয়ে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যসহ অবস্থান নিয়েছেন৷

ভোটের আগের রাতে নগরীর কয়েকটি এলাকায় বিছিন্ন সংঘর্ষ ও বোমাবাজির খবর পাওয়া গেছে৷ এছাড়া সরেজমিন পাঁচলাইশ ও বায়েজিদ থানা এলাকার কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে বেশ কিছু অস্বাভাবিক চিত্র দেখা গেছে৷ তবে কেন্দ্র গুলোর প্রিজাইডিং অফিসার এবং সংশ্লিষ্ট এলাকার দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেটের তৎপরতায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত (রাত ১টা) সেখানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিলো৷

রাত ৯টা ১৩ মিনিট৷ ৭নং পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ডের আমিন জুট মিল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভেতর ৭- ৮ জন যুবকের একটি গ্রুপ অবস্থান নিতে দেখা গেছে৷ এ সময় কেন্দ্রের ভেতরে ঢুকে সেখানে থাকা একজনের সাদা পোষাকের ব্যক্তির সাথে যুবকদের আলাপ করতে দেয়া গেছে৷ যুবকরা মূলত কেন্দ্রটির পাহারায় কতোজন আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্য নিয়োজিত আছেন এবং তাদের খাবার দাবার পৌছে দেয়ার বিষয়ে খোলাখুলি আলাপ করতে দেখা গেছে৷ পরে প্রতিবেদকের উপস্থিতি টের পেয়ে যুবকরা দ্রুত কেন্দ্রের বাহিরে গিয়ে অবস্থান নেয়৷

এসময় কেন্দ্রটির ভেতরের একটি কক্ষের দরজায় দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার মোঃ মুজিবুল হককে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। কেন্দ্রের ভেতর আইন শৃংখলা বাহিনীর উপস্থিতিতে ৭-৮ জন যুবকের অবস্থান নেয়ার কারণ জানতে চাইলে মোঃ মুজিবুল হক বলেন, “ওরা কেন এসেছে আমি জানি না৷ তবে তাদের ভেতরে ঢুকতে দেখে আমি আমার কক্ষের দরজা বন্ধ করে দেয়ার প্রস্তুতি নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছি।” এসময় কক্ষের ভেতরে একটি চেয়ারে ওপর ইভিএম মেশিন সহ ভোট গ্রহনের অন্যান্য যন্ত্র দেখা গেছে৷ কেন্দ্রের ভেতর থাকা যুবকরা খাবার দেয়ার বিষয়ে তাঁকে কোন প্রস্তাব দিয়েছে কিনা প্রশ্ন করা হলে মুজিবুল হক তার কক্ষের টেবিলের ওপর রাখা একটি খাবারের প্যাকেট দেখিয়ে বলেন, “আমি কেন্দ্রে আসার সময় আমার নিজের খাবার নিয়ে এসেছি৷ সুতরাং অন্য কারো খাবার আমার প্রয়োজন হবে না৷

এসময় কেন্দ্রটির গেইটে সাদা পোষাকে (হাতে ওয়্যারলেস ও কোমরে পিস্তল) থাকা ব্যক্তির পরিচয় জানতে চাইলে তিনি রিজার্ভ ফোর্সে কর্মরত আছেন বলে জানান৷ রাতের বেলা ভোট কেন্দ্রে যুবকদের প্রবেশের কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন,”উনারা এমনি ভোট কেন্দ্র দেখতে এসেছিলেন। আমি সবাইকে বের করে দিয়েছি।” যুবকদের সাথে খাবার ও কতজন দ্বায়িত্বে আছে সেই বিষয়ে আলাপের কারণ জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি অস্বিকার করেন৷ তাদের সেই আলাপের ভিডিও ধারণ করা আছে জানালে তিনি তেমন কারো সাথে আলাপ করেনি বলে জানান।

পরে একই ওয়ার্ডের শান্তিনগর, মোহাম্মদ নগর, আমিন জুট মিল ও হিলভিউ আবাসিক এলাকার প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রের আসে পাশে একাধিক যুবকদের অবস্থান নিতে দেখা গেছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে শান্তিনগর এলাকায় একাধিক বাসিন্দা জানান, এই যুবকরা আওয়ামী লীগ মনোনীত সদ্য সাবেক কাউন্সিলর মোবারক আলীর সমর্থক। এই ওয়ার্ডের সার্বিক বিষয়ে দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ভোট কেন্দ্র গুলোতে আমাদের টহল অব্যাহত আছে৷ ভোট শুরুর আগে এখানে কারো প্রবেশের সুযোগ নেই৷ বিচ্ছিন্ন ভাবে কেউ প্রবেশের চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে৷

এদিকে রাত ১১টা নাগাদ বায়েজিদ থানার তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ইলিয়াছ সরকারকে র‍্যাব গ্রেপ্তার করেছে মর্মে খবর পাওয়া গেছে৷ মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১১টার দিকে নগরীর বায়েজিদ থানাধীন শান্তিনগর এলাকা থেকে একাধিক সঙ্গীসহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে স্থানীয়রা জানালেও র‍্যাবের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত হওয়া যায়নি৷

 

ট্যাগ :