বাংলাদেশ, শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১

শিরোনাম

সাবেক কাউন্সিলর সরফরাজ রাসেল সহ নির্বাচন অফিসের কর্মচারীর বিরুদ্ধে মামলা


প্রকাশের সময় :১৫ জুন, ২০২১ ১২:৪৯ : অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামে রোহিঙ্গা নাগরিককে জাতীয় সনদপত্র (এনআইডি) প্রদান এবং পাসপোর্ট আবেদনে সহায়তা করার অভিযোগে ৩৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সরফরাজ কাদের রাসেল সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১৫ ই জুন) দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-১ এ মামলাটি দায়ের করেন দুদকের প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক সুভাষ চন্দ্র দত্ত।

মামলার আসামিরা হলেন ৩৯ নং দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সরফরাজ কাদের রাসেল, চসিকের জন্ম নিবন্ধন সহকারী মো. ফরহাদ হোসাইন, সন্দ্বীপ উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ের ডাটা এন্ট্রি অপারেটর মোহাম্মদ শাহজামাল, পাঁচলাইশ নির্বাচন অফিসের প্রুফ রিডার উৎপল বড়ুয়া, সাবেক প্রুফ রিডার রন্ত বড়ুয়া ও সাবেক থানা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ শেখ।

এদিকে দুদকের উপ সহকারী পরিচালক শরীফউদ্দিন বাদি হয়ে নির্বাচন অফিসের ৫ কর্মচারী, জনপ্রতিনিধিসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানা যায়।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভুয়া পরিচয় ও নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে জাতীয় পরিচয়পত্র, জাতীয়তা সনদপত্র ও জন্মনিবন্ধন সনদ তৈরি করেন। পরে ওই সনদ দেখিয়ে বাংলাদেশি পাসপোর্ট তৈরি করার চেষ্টা করেন রোহিঙ্গা নারী লাকী ( রমজান বিবি)।

মামলার আসামিরা হলেন : ডবলমুরিং থানা নির্বাচন অফিসের অফিস সহায়ক জয়নাল আবেদিন, সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসের অফিস সহায়ক নুর আহম্মদ, হাটহাজারী উপজেলা নির্বাচন অফিসের ডাটা এন্ট্রি অফিসার মো. সাইফুদ্দিন, কেরানীগঞ্জ থানা নির্বাচন অফিসের টেকনিক্যাল এক্সপার্ট সত্য সুন্দর দে, মির্জাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নুরুল আবছার, মির্জাপুর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের সদস্য নুরুল ইসলাম, মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক জন্মসনদ প্রস্তুতকারী মোহাম্মদ বেলাল, মো. ছালাম, মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, রোহিঙ্গা নারী লাকী আক্তার ও তার স্বামী নজির আহম্মদ।

২০১৯ সালে রোহিঙ্গা নাগরিক রমজান বিবি নিজের পরিচয় গোপন করে চট্টগ্রাম নির্বাচন অফিস থেকে এনআইডি কার্ড সংগ্রহ করতে আসলে তাকে আটক করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, নির্বাচন অফিসের কর্মচারীদের সহযোগিতায় অনেক রোহিঙ্গা নাগরিক এনআইডি কার্ড পেয়েছে। পরে নির্বাচন অফিসের কর্মচারী ও এই চক্রের মূল হোতা জয়নালসহ বেশ কয়েকজনকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আটক করা হয়।

ট্যাগ :